বৃহস্পতিবার, ১৩ মে ২০২১, ০৮:৪৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
পবিত্র ঈদুল ফিতরের অগ্রিম শুভেচ্ছা জানিয়েছেন’ সিনিয়র সাংবাদিক মোঃনেজাম উদ্দিন ভাই বকশীগঞ্জে ১হাজার দুস্থ অসহায় মানুষের মাঝে মহিলা আ’লীগের সভাপতি শাহিনার বস্ত্র বিতরণ বকশীগঞ্জ উপজেলা ছাত্র ও যুব অধিকার পরিষদের উদ্যোগে ছিন্নমূল মানুষের মাঝে ইফতার বিতরণ সম্পূর্ণ। শ্রীনগরে ছত্রভোগে লাথি মেরে গর্ভের সন্তান নষ্ট করার অভিযোগে গ্রেফতার ১ বান্দরবানে সেনাবাহিনী অভিযান চালিয়ে সন্ত্রাসীদের আস্তানা থেকে এসএমজি সহ গুলি সরঞ্জাম উদ্ধার বকশীগঞ্জে ৪৪ জন মহিলার মাঝে সেলাই মেশিন বিতরণ বকশীগঞ্জে উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদকের নগত অর্থ বিতরণ বকশীগঞ্জ থানার এএসআই মাহফুজুর রহমান তিন মাসেই সেরা জামালপুর জেলার মাসিক অপরাধ সভা অনুষ্ঠিত বকশীগঞ্জে অভ্যন্তরীন বোর ধান/চাল সংগ্রহ শুভ উদ্বোধন

বিজয়ের মাস গৌরবের মাস




শ্রীনগরে করোনায় কর্মহীন বেদে পরিবারগুলো বিপাকে

নিজস্ব প্রতিনিধি
  • প্রকাশের সময় | বৃহস্পতিবার, ২৯ এপ্রিল, ২০২১
  • ২৭ বার পঠিত

করোনা মোকাবেলায় ভাসমান বেদে পরিবারগুলো কর্মহীন হয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছে। নৌকায় বসবাসকারী পরিবারগুলো করোনার সার্বিক পরিস্থিতিতে অনাহারে দিন কাটছে।

প্রচন্ড রোদ, ঝড়-বৃষ্টি উপেক্ষা করে ছোট্র ছোট্র নৌকায় পরিবার পরিজন নিয়ে কোন রকমে বেঁচে থাকার জীবনযুদ্ধে টিকে আছেন তারা। এমনটাই জানা গেছে, মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগর উপজেলা সদর এলাকার খালে ভাসমান নৌকায় পরিবারগুলো মানবেতর জীবনযাপন করছে।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, উপজেলা পরিষদ সংলগ্ন শ্রীনগর-আলমপুর খাল ও শ্রীনগর বাজার সংলগ্ন শ্রীনগর-গোয়ালীমান্দ্রা খালে বেদে সম্প্রদায়ের ৪০ থেকে ৫০টি পরিবার ছোট্র ছোট্র কোষা নৌকায় করে বসবাস করছেন। ফেরী করে হাতের চূরি, মাথার ফিতা, কসমেটিকসহ নানা ধরনে মেলামাইন সামগ্রী বিক্রি করাটা তাদের প্রধান পেশা।

করোনাকালীন সময়ে লকডাউনসহ নানা প্রতিকূলতায় এবছর কোথাও হয়নি কোনও বৈশাখী উৎসব। কোথাও কোনও মেলা বা গোলিয়া উৎসব না থাকায় বেদেরা বিপাকে পরেন।

বিশেষ করে দেশে দ্বিতীয় ধাপের লকডাউনে নি¤œআয়ের অতিসাধারণ পরিবারগুলো সম্পূর্ণ কর্মহীন হয়ে পরে। যাযাবর এসব পরিবারগুলোকে কখনও দু’বেলা খেয়ে না খেয়ে অনহারে জীবনযাপন করতে হচ্ছে। এমনটাই জানায় তারা।

রোকেয়া বেগম (৬০) বলেন, করোনায় তারা বেকার হয়ে পরেছেন। কোন উৎসব অনুষ্ঠান না থাকায় তাদের বাণিজ্যও নেই। কখনও কখনও তাদের না খেয়েও থাকতে হচ্ছে।

কোনও সাহায্য সহযোগীতাও আসেনি। গত ১০ বছর যাবৎ এই এলাকার খালেই নৌকায় থাকছেন তারা। সীমা (১০), রিমন (১৫) বলেন, তাদের কোনও ঘরবাড়ি নেই।

প্রচন্ড গরম ও ঝড়-তুফান উপেক্ষা করে দিন-রাত নৌকাতেই তারা থাকেন। করোনার কারণে তাদের স্কুল বন্ধ। তারা শ্রীনগরে স্থানীয় বিদ্যালয়ে লেখা পড়া করেন।

শংখরী বেগম (৩৫) ও রুনা বেগম (৩২), সুজন মিয়া (৪৫) জানায়, বিভিন্ন মেলায় বা উৎসবে তারা কশমেটিকসহ নানা ধরণের সামগ্রী বিক্রি করেন।

করোনা রোধে তাদের এই ব্যবসা এখন বন্ধ। এতে করে কোনও আয় রুজীও করতে পারছেন তারা। সর্দার সৈয়দ মিয়া জানান, করোনাকালীন সময়ে তারা কর্মহীন হয়ে পরেছেন।

স্ত্রী, সন্তান নিয়ে কোন রকমে খেয়ে না খেয়ে দিন কাটাতে হচ্ছে। করোনায় ব্যবস্যা বাণিজ্য না থাকায় বিভিন্ন খালে বা ডোবায় বড়সি ও চাই দিয়ে মাছ শিকার করে বিক্রি করেন।

যদি মাছ পাওয়া যায় তাহলে খাবার জুটে। এমনও দিন আছে কোনও মাছ পাওয়া যায়না। শুণ্য হাতে ফিরতে হয়। পরিবার পরিজন নিয়ে অনাহারে কষ্টে দিন পার করছি।

এই পরিস্থিতিতে তাদের কাছে সরকারি বা স্থানীয়ভাবে কোনও খাদ্য সহায়তাও আসেনি বলেন তিনি।

আরও পড়ুনঃ দেয়ালে অবরুদ্ধ মুক্তিযুদ্ধের ট্রেনিং ক্যাম্প

নিউজটি সেয়ার করুন:
it.durjoybangla




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই জাতীয় আরো সংবাদ

আজকের নামাজের সময়সুচী

সেহরির শেষ সময় - ভোর ৩:৫৩ পূর্বাহ্ণ
ইফতার শুরু - সন্ধ্যা ৬:৩৫ অপরাহ্ণ
  • ফজর
  • যোহর
  • আছর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যোদয়
  • ৩:৫৮ পূর্বাহ্ণ
  • ১১:৫৮ পূর্বাহ্ণ
  • ৪:৩২ অপরাহ্ণ
  • ৬:৩৫ অপরাহ্ণ
  • ৭:৫৭ অপরাহ্ণ
  • ৫:১৮ পূর্বাহ্ণ




©২০১৮ সর্বস্তত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | দৈনিক লাল সবুজের ১১ নং সেক্টর অব বাংলাদেশ

Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesba-lates1749691102