শনিবার, ২৪ জুলাই ২০২১, ০২:১৯ অপরাহ্ন

বিজয়ের মাস গৌরবের মাস




শেরপুরে ঝিনাইগাতী মহিলা আদর্শ ডিগ্রি কলেজে নিয়োগ নিয়ে চলছে দুর্নীতি ও ব্যবসা”

রিপোর্টারঃ
  • প্রকাশের সময় | শনিবার, ১২ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ১৯২ বার পঠিত

 

নিজস্ব প্রতিনিধি:

শেরপুরের ঝিনাইগাতিতে জালিয়াতি নিয়োগ নিয়ে চলছে বাণিজ্য ও  দূর্নীতি। এর সাথে জড়িত জামাত সমর্থক বহুল আলোচিত ঝিনাইগাতি মহিলা আদর্শ ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ খলিলুর রহমানকে সাময়িক ভাবে বহিস্কার করেছে ওই কলেজের গভনিং বড়ি।

১০ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিত কলেজের গভনিং বড়ি সভায় এ সিদ্ধান্ত নিয়ে ১২ সেপ্টেম্বর ওই কলেজের সহকারী অধ্যাপক আলিম উল রেজা নিক্সনকে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ হিসেবে দায়িত্ব প্রদান করা হয় ।

বিষয়টি নিশ্চিত করেন কলেজের সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব ওয়ারেছ আলী নাঈম।

এর আগেও ওই অধ্যক্ষকে অপসারণ ও বিচার করার দাবিতে মানব বন্ধনসহ নানা আন্দোলন করে এলাকাবাসী। ঘটনা তদন্তে মাঠে নেমেছে প্রশাসনও।

আদর্শ ডিগ্রি মহিলা কলেজে শিক্ষক বিধি মোতাবেক নিয়োগ পেয়ে ইংরেজী প্রভাষক হিসাবে পিআর মাহুমদ রাহুল ৮ বছর চাকুরী করেও সম্প্রতি কলেজটি ডিগ্রি শাখায় এমপিও ভূক্ত হলে সেই তালিকায় ঠায় হয়নি তার।

তার স্থলে এমপিও হয়েছে মোটা অংকের টাকা দিয়ে অবৈধভাবে নিয়োগ পাওয়া আবু হানিফ নামের একজনকে। যাকে কেউ আদৗ চিনে না।

একই অবস্থা ওই কলেজের দর্শন বিভাগে ২০১৫ সালে নিয়োগ পাওয়া প্রভাষক যমুনা বেগমের ক্ষেত্রেও তার কাছে ১৫ লক্ষ টাকা চেয়ে না পেয়ে মোটা অংকের টাকা নিয়ে কলেজ অধ্যক্ষ খলিলুর রহমান ময়মনসিংহে জেলার ফুলপুর উপজেলার কাতুলি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষিকা আফরোজা বেগমকে ভূয়া নিয়োগ দেখিয়েছেন।

একই অবস্থায় আরো ২ জনকে অবৈধভাবে নিয়োগ দিয়েছেন এদের নিবন্ধনসহ অন্যান্য কাগজ জাল জালিয়াতি করেছেন।

অধ্যক্ষ নিজেও তার কাগজ জালিয়াতি করে অধ্যক্ষ হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন বলে অভিযোগ করছেন সাবেক সভাপতি । তার স্ত্রী এইচএসসি পাস হওয়া সত্বেও তাকে অবৈধভাবে ভূয়া কাগজ দেখিয়ে প্রভাষক হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়েছে।

এছাড়াও তার বিরুদ্ধে রয়েছে অণ্যের জমি দখল করার অভিযোগ। জালিয়াতি নিয়োগ বাণিজ্যসহ নানা দুর্নীতি করে হয়ে উঠেছে কোটি টাকার মালিক।

জাতির পিতার বঙ্গবন্ধুর ভাষনকে আইয়ুবের শাসনের সাথে তুলনা করে উপজেলা আইনশৃঙ্খলা কমিটি থেকে বহিস্কৃত হয়েছেন  এ অধ্যক্ষ। তাই শিক্ষক ও এলাকাবাসী তার অপসার দাবীতে করেছেন মানব বন্ধন।

এ বিষয় নিয়ে স্থানীয় প্রশাসনও তদন্তে মাঠে । তদন্তে ঘটনা সত্যতা পান তদন্ত কমিটির প্রধান উপজেলা নির্বাহী অফিসার রুবেল মাহমুদ।

তদন্ত থেকে বাচঁতে কাগজ পত্র চুরির নাটকও সাজিয়েছিলেন অধ্যক্ষ।  এ বিষেয়ে কলেজের সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব ওয়ারেছ আলী নাঈম জানান আমরা অধ্যক্ষ খলিলুর রহমানকে ৭ দিনের সময় কারণ দর্শানোর নোটিশ দিয়েছিলাম কিন্তু তার জবার সন্তেষজনক না হওয়ায় তাকে সাময়িক ভাবে বহিস্কার করা হয়েছে।

একই সাথে বিধি মোতাবেক কলেজের সিনিয়র সহকারী অধ্যাপক আলিম উল রেজা নিক্সনকে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ হিসেবে দায়িত্ব প্রদান করা হয়েছে।

নিউজটি সেয়ার করুন:
it.durjoybangla




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই জাতীয় আরো সংবাদ

আজকের নামাজের সময়সুচী

সেহরির শেষ সময় - ভোর ৩:৫৫ পূর্বাহ্ণ
ইফতার শুরু - সন্ধ্যা ৬:৫১ অপরাহ্ণ
  • ফজর
  • যোহর
  • আছর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যোদয়
  • ৪:০০ পূর্বাহ্ণ
  • ১২:০৮ অপরাহ্ণ
  • ৪:৪৩ অপরাহ্ণ
  • ৬:৫১ অপরাহ্ণ
  • ৮:১৪ অপরাহ্ণ
  • ৫:২২ পূর্বাহ্ণ




©২০১৮ সর্বস্তত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | দৈনিক লাল সবুজের ১১ নং সেক্টর অব বাংলাদেশ

Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesba-lates1749691102