বুধবার, ০৫ অগাস্ট ২০২০, ১০:০১ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
শেরপুরে ঈদ পরবর্তী শুভেচ্ছা বিনিময় করলেন জেলা প্রশাসক সিলেট জেলায় করোনায় সুস্থতার চেয়ে মৃত্যু এগিয়ে হালুয়াঘাটে বন্যা কবলিত মানুষের কাছে ত্রান সহায়তা নিয়ে হাজির হলেন, বিএনপি নেতা সালমান ওমর রুবেল। ইসলামপুরে শহীদ শেখ কামাল এর জন্মবার্ষিকী পালিত করোনা ও বন্যা মোকাবিলায় সরকারের পদক্ষেপ লিপ সার্ভিসেই সীমাবদ্ধঃ প্রিন্স ধোবাউরা বন্যা কবলিত মানুষের পাশে ত্রান সামগ্রী নিয়ে হাজির হলেন সৈয়দ এমরান সালেহ’ প্রিন্স । শেরপুরে বিভিন্ন স্থানে বজ্রপাতে ৩জনের মৃত্যু দুস্থ্য সাংবাদিকদের কপালে জোটেনি প্রনোদনা কুড়িগ্রামে অন্য পেশাজীবী, ১ম শ্রেণির ঠিকাদার, বড় ব্যবসায়ী ও বিত্তশালী সাংবাদিক পেল প্রধানমন্ত্রীর সাহায্যের (প্রনোদনার) চেক আগামী অক্টোবর মাসে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে টিকা দান কর্মসূচিঃ শুরু করার প্রস্তুতি নিচ্ছে রাশিয়ার করোনা টিকা সিলেটে ১জন অটোরিকশা চালকের লাশ উদ্ধার

মুক্তিযোদ্ধা হাসপাতাল এখন ‘ভুতুড়ে বাড়ি’

রিপোর্টারঃ
  • প্রকাশের সময় | শনিবার, ১৩ জুন, ২০২০
  • ৫৩ বার পঠিত

অনলাইন ডেস্ক :

প্রায় ২৫ বছর ধরে বন্ধ রয়েছে রাজধানীর মিরপুরে অবস্থিত মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য তৈরি ‘ট্রাস্ট আধুনিক হাসপাতাল’।

দীর্ঘদিন বন্ধ থাকার কারণে এটি এখন ভুতুড়ে বাড়িতে পরিণত হয়েছে। ১০০ শয্যা বিশিষ্ঠ এই হাসপাতালের শুরুতে মুক্তিযোদ্ধাদের পাশাপাশি এলাকার সাধারণ জনগণও চিকিৎসাসেবা নিতে পারতো।

কিন্তু এখন সব কিছুই বন্ধ। মুক্তিযোদ্ধা ও স্থানীয় সাধারণ মানুষের দাবি করোনার এই দুঃসময়ে হাসপাতালটিকে পুনরায় চালু করার। দেশের একটি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল হাসপাতালটির এমন চিত্র তুলে ধরেছে।

সরেজমিন চিত্রে দেখা গেছে, হাসপাতালটির সব রুমেই তালা লাগানো। ইমার্জেন্সি রুমে চিকিৎসা সামগ্রী অযতেœ-অবহেলায় পরে রয়েছে। হাসপাতালের বারান্দাসহ সব জায়গাতেই ময়লার স্তুপ। আরো দেখা গেছে, হাসপাতালটির সব রুমেই ৭ থেকে ৮টি বেড রয়েছে।

তবে ব্যবহার না করার ফলে সেইসব বেডে ময়লার স্তর জমে গেছে। হাসপাতালটিতে অত্যাধুনিক একটি অপারেশন থিয়েটারও রয়েছে। রয়েছে দুটি ভ্রাম্যমাণ ইউনিটও।

চিকিৎসকদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, একটি ভ্রাম্যমাণ ইউনিটে প্রায় দুইটি অপারেশন করা সম্ভব। কোন রোগী যদি আসতে না পারে ভ্রাম্যমাণ ইউনিটের গাড়ি চিকিৎসক-নার্সসহ সেখানে গিয়ে চিকিৎসাসেবা দিতে পারবে। কিন্তু হাসপাতালটির সব ধরনের সুযোগ সুবিধা এখন বন্ধ।

এ প্রসঙ্গে মুক্তিযোদ্ধা মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তারা জানান, ৯০ সালের দিকে এই হাসপাতালটি তৈরি হয়। পাঁচ থেকে সাত বছর চালু থাকার পর নানা জটিলতায় হাসপাতালটি বন্ধ হয়ে যায়। এছাড়াও আরও অনেক সমস্যা রয়েছে।

তবে মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য তৈরি এই হাসপাতালটি কিভাবে আবার পুনরায় চালু করা যায় সেটি নিমুক্তিযোদ্ধা হাসপাতালয়ে ভাবছে মন্ত্রণালয় বলেও জানান তারা।

এদিকে স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধা ও এলাকাবাসির দাবি, এখন করোনা মৌসুম চলছে। সকল হাসপাতালেই রোগীদের ভিড়।

হাসপাতালে নতুন রোগী ভর্তি হলে বেড পেতে বেগ পেতে হয়। এখন যদি এই হাসপাতালটি চালু করা যেত। তাহলে সেটা করোনা রোগীসহ, মিরপুর বাসিন্দাদের জন্য ভালো হত।

নিউজটি সেয়ার করুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই জাতীয় আরো সংবাদ

আজকের নামাজের সময়সুচী

সেহরির শেষ সময় - ভোর ৪:০৬ পূর্বাহ্ণ
ইফতার শুরু - সন্ধ্যা ৬:৪২ অপরাহ্ণ
  • ফজর
  • যোহর
  • আছর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যোদয়
  • ৪:১১ পূর্বাহ্ণ
  • ১২:০৮ অপরাহ্ণ
  • ৪:৪১ অপরাহ্ণ
  • ৬:৪২ অপরাহ্ণ
  • ৮:০২ অপরাহ্ণ
  • ৫:২৯ পূর্বাহ্ণ

©২০১৮ সর্বস্তত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | দৈনিক লাল সবুজের ১১ নং সেক্টর অব বাংলাদেশ

কারিগরি সহযোগিতায় durjoybangla.com
themesba-lates1749691102